Thursday, 21 November, 2019, 8:35 PM
Home খেলা
ভালো খেলছে বলেই ...
আসিফ আহমেদ লিখেছেন সমকালে
Published : Wednesday, 26 April, 2017 at 2:24 PM, Update: 08.05.2017 9:16:53 AM, Count : 67
প্রতিবাদ, ক্ষোভ কিংবা নিছক মজা- সুজন মাহমুদ প্রকৃতপক্ষে কী করতে চেয়েছিলেন? তিনি লালমাটিয়া ক্লাবের হয়ে ক্রিকেট খেলেন, দ্বিতীয় বিভাগে। ১১ এপ্রিল সিটি ক্লাব মাঠে এক্সিওম ক্রিকেটার্সের বিপক্ষে মাত্র ৪টি লিগ্যাল বা বৈধ ডেলিভারি দিয়েছেন। অথচ স্কোরবোর্ড দেখাচ্ছে_ রান উঠে গেছে ৯২। সেদিনের মাঠে স্কোরবোর্ড নিয়ে যাদের দায়িত্ব ছিল, তারা নিশ্চয়ই গলদঘর্ম হয়েছেন। ১৯৯০ সালে নিউজিল্যান্ডের একটি খেলায় এক ওভারে ৭৭ রান উঠেছিল। ফিল্ডিং সাইড নিছক মজা করার জন্য এ রান তুলতে দিয়েছিল। চার, ছয় মারার জন্য একের পর এক লোপ্পা বল দিয়ে যাচ্ছিলেন বোলার। ওভারটিতে বৈধ কিংবা অবৈধ বলগুলোতে তোলা রান নিয়ে যে স্কোরকার্ড তৈরি হয়েছিল সেটা ছিল এভাবে : ০৪৪৪৬৬৪৬১৪১০৬৬৬৬৬ ০০৪০১। কিন্তু সুজন মাহমুদ প্রকৃতপক্ষে মজা নয়, প্রতিবাদ করেছেন। তার ভাষ্য অনুযায়ী, আম্পায়ারের পক্ষপাতদুষ্ট আচরণের বিরুদ্ধে এমন কাণ্ড। ওভারটিতে তিনি ১৩টি ওয়াইড বল করেন, যার প্রতিটি বাউন্ডারি সীমানা অতিক্রম করে যায়। কোনো ফিল্ডার এসব বল ধরার চেষ্টা করেননি। এ 'অবৈধ বলগুলো' থেকে আসে ৬৫ রান। তিনি ৩টি নো বল করেন, যা থেকে আসে ১৫ রান। এভাবে ওয়াইড ও নো বল থেকে আসে ৮০ রান। যে চারটি বৈধ বল তিনি করেন, তা থেকে আসে ১২ রান। অর্থাৎ ৬৫+১৫+১২= মোট ৯২ রান তিনি দেন, অথচ বৈধ মাত্র ৪টি। এক ওভারও নয়, মাত্র ৪ বলেই ৯২ রান তুলে ম্যাচটি জিতে যায় এক্সিওম!

ক্রিকেটকে বলা হয় রেকর্ডের খেলা। কত যে রেকর্ড এ খেলায়। কেউ কেউ মজা করে বলেন_ কোন ম্যাচে কোন খেলোয়াড় হাঁচি দিয়েছিল কিংবা কার মাথায় খেলার সময় উড়ন্ত পাখি মলত্যাগ করেছিল_ সেটাও রেকর্ড হিসেবে ধরা হতে পারে!

বাংলাদেশের এ ঘটনাটি বিশ্ব ক্রিকেটের জন্য বড় খবর। ভারত, অস্ট্রেলিয়াসহ আরও কয়েকটি দেশের খেলার পাতায় গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ করা হয়েছে এ 'কেলেঙ্কারি'। একাধিক বাংলাদেশি ক্রীড়া সাংবাদিক বলেছেন, সাম্প্রতিক সময়ে মাশরাফি-সাকিব-মুশফিক বাহিনীর ধারাবাহিক সাফল্যের কারণে বিভিন্ন দেশের ক্রিকেট মহলের সার্বক্ষণিক নজর রয়েছে বাংলাদেশের ওপর। তারা উঠতি ব্যাটসম্যান-বোলারদের খবর রাখে, কেচ্ছা-কেলেঙ্কারি ঘটে কি-না, সেটাও জানার চেষ্টা করে। হরিণ প্রসঙ্গে প্রবাদ আছে_ এ সুন্দর প্রাণীটির সুস্বাদু মাংসই তার জন্য অনেক শত্রু তৈরি করে। বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা যেহেতু ভালো খেলতে শুরু করেছে এবং এ খেলার ব্যবস্থাপনাও যেহেতু ভালো, তাই বিশ্ব ক্রিকেটের নজর পড়ছে। তাদের কাছে যা কিছু ভালো তা যেমন ধরা পড়ছে, তেমনি মন্দ কিছু ঘটলে সেটাও নজর এড়াচ্ছে না। অতএব, সাধু সাবধান। খেলোয়াড়, আম্পায়ার, সংগঠক_ সবাইকেই সদা সতর্ক থাকা চাই। বড় ধরনের কোনো ভুল বা অনিয়ম ঘটলে সেটা এখন আর উপেক্ষা করার অবকাশ নেই। কোন ক্রিকেটার বউ পেটালে, বান্ধবীর সঙ্গে অসদাচরণ করলে কিংবা কাজের মেয়েকে নির্যাতন করলেও সেটা বড় খবর। দ্বিতীয় বিভাগের একটি খেলায় সুজন নামের একজন অখ্যাত দ্রুতগতির বোলার মাত্র 'চার বলে ৯২ রান' দিয়েছে। কয়েক বছর আগে ঘটলে এ খবরটি ভারত, অস্ট্রেলিয়া বা ইংল্যান্ডের ক্রিকেট সাংবাদিকদের নজরে পড়ত না। কিন্তু এখন পড়ছে এবং হৈচৈ হচ্ছে। সঙ্গত কারণেই আমাদের ক্রিকেট কর্তৃপক্ষকেও গঠন করতে হচ্ছে তদন্ত কমিটি। এ তদন্ত দায়সারা হলে সেটাও কিন্তু খবর হবে!









« PreviousNext »

সর্বশেষ
অধিক পঠিত
এই পাতার আরও খবর
ইনফরমেশন পোর্টাল অব বাংলাদেশ (প্রা.) লিমিটেড -এর চেয়ারম্যান সৈয়দ আবিদুল ইসলাম ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ রওশন জামান -এর পক্ষে সম্পাদক কাজী আব্দুল হান্নান  ও উপদেষ্টা সম্পাদক সৈয়দ আখতার ইউসুফ কর্তৃক প্রকাশিত ও প্রচারিত
ইমেইল: [email protected], বার্তা বিভাগ: [email protected]